সেই রাতে ওর বাবাই আমাকে

Loading...

ভিন্ন.কম ডেস্ক: আমরা সব সময় বলে থাকি যে, জীবন থাকলে সমস্যা থাকবে,আর সমস্যা থাকলে উত্তরনের উপায় ও থাকবে, কিছু কিছু সমস্যা প্রকট অবার কিছু সমস্যা সামান্য। তবে সব সমস্যাই সমস্যা, আর এই সব সমস্যা মোকাবেলা করে জীবন কে এগিয়ে নিতে হবে আমি সোমা কামাল সবাইকে এটাই বলে থাকি সব প্রশ্নের উত্তরে। প্রতিদিন আমরা অগণিত মেইল ও মেসেজ পেয়ে থাকি পাঠকের নির্বাচিত কিছু প্রশ্নের উত্তর আমরা দেবার চেষ্টা করি।

ঠিক তেমনি আজকেও আমাদের একজন অসহায় বোনের চিঠি ছোট করে প্রকাশ করে সেটার উত্তর দিচ্ছি..… আপনিও চাইলে আপনার যেকোন সমস্যার কথা আমাদেরকে মেইল করতে পারেন কিংবা ফেসবুক পেজের মাধ্যমে জানাতে পারেন, আমাদেরকে লেখার ঠিকানা: info@bhinno.com. অথবা www.facebook.com/bhinnotips

কণা (ছদ্মনাম)
আপু/ভাইয়া আমার কষ্টের কথা যদি বলি তাহলে সেটা এখানে লিখে শেষ করতে পারবো না, আপনারা সব সময় বলেন সব কিছু সংক্ষেপে বলতে কিন্তু জীবনের আকার যেমন বড় ঘটনাও তেমন বিশাল.এই বিশাল ঘটনা সংক্ষেপে কিভাবে কি করে বলবো সেটা কিছুতেই বুঝতে পারছি না.

আপু আমরা দুই ভাইবোন,আমরা জন্মের পর থেকেই দুখি বলতে পারেন কারণ সেই ছোটবেলা মাকে হারিয়েছি বাবাই আমাদেরকে অনেক কষ্টে বড় করেছেন,আমাদের পরিবারের সাথে আমার নানু কিংবা দাদু বাড়ির কোন সম্পর্ক নেই,এটার পিছনে বিশাল এক ইতিহাস আছে.

আমার আব্বু হলেন মুসলমান আর আম্মু ছিলেন হিন্দু,ভালোবেসে আব্বু আম্মু বিয়ে করেছিলেন কিন্তু দাদু কিংবা নানুরা কেও সেটা মেনে নেয়নি,চাচুরা আব্বু আম্মুকে বাড়ি থেকে বের করে দেই,আমার নানা বাড়িতেও আম্মুর যাওয়া নিষেধ ছিলো,আমার আব্বু একজন সরকারী চাকুরীজীবি, আমার বয়স যখন আট বছর তখন আমার ছোট ভাইয়ের জন্মের কিছুদিন পরে আম্মু মারা যান,বাবা আর বিয়ে করেনি, কিন্তু কখনোই আমাদের কে মায়ের অভাব বুঝতে দেইনি, আমাদের বড় করতে কত যে কষ্ট করেছেন সেটা বলে কাওকে বুঝাতে পারবো না। আমি একটি বেসরকারি প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সবেমাত্র পড়াশোনা শেষ করেছি আর আমার ছোট ভাই ক্লাস এইটে পড়েন।

আপু আমি এক জটিল সমস্যায় পড়েছি যেটা আসলে আমার বাবা মেনে নিয়েছেন কিন্তু ওরা মেনে নিতে চাইছেন না,আমার বাবা মা যে ভুল করেছে ঠিক সেই একই ভুল আমিও করেছি একটি ছেলেকে ভালবেসে কিন্তু ভালবাসা তো কোন অপরাধ নয়। ছেলেটির নাম শাফিন একটি বেসরকারী ব্যাংকে আছেন। শাফিন ধর্মে মুসলমান আমিও তো মুসলিম ধর্মের অনুসারী বাবার দিক থেকে কিন্তু সাফিনের পরিবার কিছুতেই আমাদের সম্পর্ক মেনে নিচ্ছে না।

আমার বাবা সবসময় স্বাধীন চেতনায় বিশ্বাসী তাই আমাকে বলেছে তুমি বড় হয়েছো তোমার ভালমন্দ তুমি নিজেই বুঝতে পারবে তাই এই সম্পর্কে কোন আপত্তি করছে না কিন্তু সাফিনের পরিবার কিছুতেই আমাকে মানবে না সরাসরি বলে দিয়েছে.আর সাফিনও আমাকে ছেড়ে কোনভাবেই থাকবে না.ইতোমধ্যে সাফিন একবার ওর বাবা মায়ের উপর অভিমান করে আত্বহত্যা পর্যন্ত করতে গিয়েছিলো কিন্তু আল্লাহর অশেষ রহমতে আমার ভালোবাসার টানে আল্লাহ ওকে বাঁচিয়ে রেখেছেন.

গত কয়েকদিন আগে রাতের সময় সাফিনের বাবা মা আমার সাথে দেখা করে আমাকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করছে,আপু আমার তো কোন দোষ নেই,আমার বাবা মা দুই ধর্মের এটাই কি আমার অপরাধ?সেই রাতে ওর বাবাই আমাকে বলছে আমি নাকি দচলা,আমি অলক্ষি,আমি যদি সাফিনা কে বিয়ে করি তাহলে নাকি তাদের সংসারে অশান্তি নেমে আসবে.

আমার মতো মেয়েকে তারা কোনদিন গ্রহণ করবে না, কিন্তু আপু আমি সাফিনা কে নিষেধ করলেও ও আমাকে ছেড়ে থাকতে পারবে না, ও একটু খামখেয়ালি স্বভাবের। সব সময় বলে আমি পৃথক হলে সে আত্বহত্যা করবে, এখন আপনিই বলুন আমি কার কথা রাখবো, ওর বাবার কথা নাকি ওর জীবন……..

প্লিজ আপু আমার নাম টা সবার সামনে প্রকাশ করবেন না, অতিদ্রুত আপনি মেইল করে আমাকে একটা পরামর্শ দিন.

পরামর্শঃ আপনার পরামর্শ আশা করি অতিদ্রুত পেয়ে যাবেন, একটু অপেক্ষা করুন। আর আমাদের ভিন্ন ডট কমের সাথেই থাকুন, পাঠকদের বিভিন্ন মতামত অবশ্যই আপনার কাজে লাগতে পারে।

বি:দ্র: আমরা শুধুমাত্র মানুষিক শক্তির জন্য পরামর্শ দিয়ে থাকি। আইনগত সহযোগীতার জন্য অবশ্যই বিভিন্ন মানবাধিকার সংস্থা ও আদালত আছে। সমস্যা অতি গুরুতর হলে সেখানে গেলে আপনি অবশ্যই আইনি সহায়তা পাবেন।

এই লেখাটি ভূক্তভোগী শুধু মাত্র ভিন্ন.কম এ পাঠিয়েছেন, এই লিখাটি কেউ অন্য কোথাও প্রকাশ করলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

প্রতিদিন নতুন নতুন চাকুরীর ও পড়ালেখার খবর পেতে লাইক দিন আমাদের ফেসবুক পেইজে!

অন্যরা এখন যা পড়ছেন:

পোষ্টটি লিখেছেন: বিশ্ব বিবেক

বিশ্ব বিবেক এই ব্লগে 3304 টি পোষ্ট লিখেছেন .

Loading...
পোস্টটি ভাল লাগলে লাইক দিন