হোম » চাকুরী » বিসিএস লিখিত পরীক্ষায় ক্যালকুলেটর ব্যবহারের অনুমতি
বিসিএস লিখিত পরীক্ষায় ক্যালকুলেটর ব্যবহারের অনুমতি

বিসিএস লিখিত পরীক্ষায় ক্যালকুলেটর ব্যবহারের অনুমতি

৩৫তম বিসিএসের লিখিত পরীক্ষায় ১০ বিষয়র উপর ক্যালকুলেটর ব্যবহারের অনুমতি দিয়েছে বাংলাদেশ সরকারি কর্ম কমিশন (বিপিএসসি)। সোমবার পিএসসির পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক আ ই ম নেছার উদ্দিন স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে একথা জানানো হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, আবশ্যিক বিষয় গাণিতিক যুক্তি, গণিত, ফলিত গণিত, পদার্থবিদ্যা, ফলিত পদার্থবিদ্যা, পরিসংখ্যান, হিসাব বিজ্ঞান, কম্পিউটার সায়েন্স, ইলেকট্রনিক্স এবং ইঞ্জিনিয়ারিং বিষয়ের পরীক্ষা ছাড়া অন্য সব পরীক্ষার দিন হলে ক্যালকুলেটর ব্যবহার নিষিদ্ধ।

আগামী ১ সেপ্টেম্বর থেকে ৩৫তম বিসিএস আবশ্যিক বিষয়ের পরীক্ষা শুরু হবে। চলবে ৭ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত। আর পদ সংশ্লিষ্ট বিষয়গুলোর পরীক্ষা হবে ৯ সেপ্টেম্বর থেকে ১০ অক্টোবর পর্যন্ত। ঢাকা, রাজশাহী, চট্টগ্রাম, খুলনা, বরিশাল, সিলেট ও রংপুর কেন্দ্রে একযোগে লিখিত পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।

বাংলা বিষয়ের জন্য আরেকটি নির্দেশনা দিয়ে ওই বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ৭ সেপ্টেম্বর অনুষ্ঠেয় বাংলা প্রথম ও দ্বিতীয় পত্রের জন্য ভিন্ন ভিন্ন কোড না থাকলেও প্রথমপত্রে ০০১ এবং দ্বিতীয়পত্রে ০০২ কোড লিখতে হবে।

দু’টি লিথোকোডযুক্ত মূল উত্তরপত্রে দুই অংশে উত্তর লিখতে হবে। একই উত্তরপত্রে দুই পত্রের উত্তর দিলে তা বাতিল হবে। একই প্রশ্নপত্রে ভিন্নভাবে দুই পত্রের জন্য ১০০ নম্বর করে প্রশ্ন থাকবে।

আর ৭ সেপ্টেম্বর কারিগরি/পেশাগত ক্যাডারের পছন্দের প্রার্থীদের জন্য (খ) ক্রমিকে বর্ণিত ১০০ নম্বরের তিন ঘণ্টার বাংলা প্রথমপত্রের পরীক্ষার শর্ত ও কোড নম্বর অপরিবর্তিত থাকবে বলে জানিয়েছে পিএসসি।

নতুন নিয়মে ২০০ নম্বরের লিখিত পরীক্ষা হবে চার ঘণ্টা, আর ১০০ নম্বরের পরীক্ষা হবে তিন ঘণ্টা। লিখিত পরীক্ষায় গড় পাস নম্বর ন্যূনতম ৫০ শতাংশ। কোনো প্রার্থী ৩০ নম্বরের কম পেলে তিনি উক্ত বিষয়ে কোনো নম্বর পাননি বলে গণ্য হবে। লিখিত ও মৌখিক পরীক্ষায় একইভাবে পাস করতে হবে।

এর আগে পরীক্ষার হল গেটে তল্লাশি চালিয়ে ক্যালকুলেটর বা কোনো ডিভাইস পাওয়া গেলে পরীক্ষার্থীর প্রার্থিতা বাতিল করার ঘোষণা দিয়েছিল পিএসসি।

পোষ্টটি লিখেছেন: Bhinno

Bhinno News এই ব্লগে 79 টি পোষ্ট লিখেছেন .

An exclusive website for Bhinno News

Close [X]