হোম » শিক্ষা » বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোকে আবারো ছাড়
বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোকে আবারো ছাড়

বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোকে আবারো ছাড়

১৫ সেপ্টেম্বরের মধ্যে নিজস্ব ক্যাম্পাসে যাওয়ার যে বাধ্যবাধকতা ছিলো তা শিথিল করে এখন ৩০ সেপ্টেম্বরের মধ্যে ‘কোন বিশ্ববিদ্যালয় কী অবস্থায় আছে’ তা জানাতে বলা হয়েছে। এরপর তার ওপর বিবেচনা করে বিবেচনা করে ব্যবস্থা নেয়ার যে হুশিয়ারি দিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ।

বৃহস্পতিবার রাজধানীর আগারগাঁওয়ে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর কর্তৃপক্ষের সঙ্গে আলোচনা সভায় মন্ত্রী এ কথা বলেন।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ‘সরকারের ঘোষিত সময় অনুসারে আগামী ১৫ সেপ্টেম্বরের মধ্যে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোকে নিজস্ব জমিতে ক্যাম্পাস করে কার্যক্রম চালানোর কথা ছিল। এখন পর্যন্ত পুরোনো ৫২টি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে মাত্র ১৭টি নিজস্ব ক্যাম্পাস করেছে। বাকিগুলোর মধ্যে সাতটি আংশিক শিক্ষা কার্যক্রম চালাচ্ছে। নয়টির ভবন নির্মাণাধীন ও ১৭টির জমি কেনার ব্যাপারটি প্রক্রিয়াধীন। অন্য তিনটি বিশ্ববিদ্যালয় এখনো পর্যন্ত জমি কেনেনি।’

তিনি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর সঙ্কট ও সীমাবদ্ধতাগুলো কাটিয়ে মানসম্মত শিক্ষা প্রদানের প্রতি গভীর মনোনিবেশের আহ্বান জানান।

সভায় বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের চেয়ারম্যান অধ্যাপক আবদুল মান্নান বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর বিভিন্ন অনিয়মের চিত্র তুলে ধরেন। তিনি বলেন, ‘বেশির ভাগ বিশ্ববিদ্যালয়ই নিজেদের সিন্ডিকেট সভায় সরকার ও ইউজিসি মনোনীত সদস্যদের জানাচ্ছে না। অনুমোদন ছাড়াই কয়েকটি বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস পরিচালনা করছে। কয়েকটিতে বোর্ড অব ট্রাস্টিদের মধ্যে দ্বন্দ্ব দেখা দিয়েছে। সেই সঙ্গে বেশির ভাগ বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, কর্মকর্তা, কর্মচারীদের নির্দ্রিষ্ট কোনো বেতনকাঠামো নেই। ৪০টি বিশ্ববিদ্যালয় নামমাত্র গবেষণা করছে। কিন্তু ইউজিসির ক্ষমতা সীমিত থাকায় তারা কিছু করতে পারছে না। এ বিষয়ে যা সিদ্ধান্ত নেয়ার মন্ত্রণালয় নেবে।’

সভায় বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর ট্রাস্টি বোর্ডের চেয়ারম্যান ও উপাচার্যরা বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে ভ্যাট এবং মনিটরিং ফি প্রত্যাহারের অনুরোধ জানান। একইসঙ্গে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়েও বিডিরেন এবং ইউজিসি ডিজিটাল লাইব্রেরির সুবিধা প্রদানের অনুরোধ করেন। শিক্ষামন্ত্রী জানান, বিষয়টি নিয়ে তিনি প্রধানমন্ত্রী ও অর্থমন্ত্রীর সঙ্গে আলাপ করবেন।

অনুষ্ঠানে ইউজিসি চেয়ারম্যান অধ্যাপক আবদুল মান্নান সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন ইউজিসি সদস্য অধ্যাপক ড. আবুল হাশেম, অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ ইউসুফ আলী মোল্লা ও ইউজিসি সদস্য প্রফেসর ড. দিল আফরোজা বেগম এবং ৭৬টি প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রাস্টি বোর্ডের চেয়ারম্যান ও উপাচার্যরা উপস্থিত ছিলেন।

পোষ্টটি লিখেছেন: Ayon Hasan

Ayon Hasan এই ব্লগে 135 টি পোষ্ট লিখেছেন .

-->