অবশেষে মিথিলা এবং ফারজানার জন্য কঠিন ব্যাবস্থা নিচ্ছে মার্ক জুকারবার্গ

Loading...

 

ফাইল ফটো

প্রতিনিয়ত নিত্যনতুন ঘোষনায় মার্ক জুকারবার্গ সবাইকে চমকে দিচ্ছেন,তবে মার্কের এই ঘোষণার মধ্য নিহিত আছে ফেসবুক ব্যাবহারকারী দের জন্য নিরাপত্তা.
আপনারা হয়তো আজকের এই শিরোনাম দেখে চমকে উঠেছেন,ভাবছেন মিথিলা এবং ফারজানার সাথে মার্ক জুকারবার্গের কি শত্রুতা.

হ্যাঁ শত্রুতা আছে বটে কিন্তু আসল মিথিলা কিংবা ফারজানার সাথে নয় নকল মিথিলা ও ফারজানার সাথে সমগ্র ফেবু কতৃপক্ষের বেশ দ্বন্দ্ব আছে.চলুন বিস্তারিত জেনে নেওয়া যাক একনজরেঃ
সবার জন্য ফেসবুক ব্যাবহার নিরাপদ করতেই ইতোমধ্যে ফেসবুকে চিরুনি অভিযান চলছে,দীর্ঘ দিন ধরে অবহৃত কিংবা সন্দেহজনক আইডি ব্লক করে দেওয়া হচ্ছে কিংবা সন্দেহ হলেই ভেরিফিকেশন করতে বলা হচ্ছে.

সম্প্রতি ফেসবুকের রিস্ক অপারেশন থেকে ব্লগ পোষ্টের মাধ্যমে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে কিছু বিষয় সেগুলো আপনাদের সামনে তুলে ধরা হলো কিছু.

পাসওয়ার্ড,ইমেইল কিংবা মোবাইল নাম্বার আপডেট করতে হবে,একটি আইডি থেকে একাধিক গ্রুপের কিংবা পেজের Admin থাকা যাবে না.

মিচুয়াল ফ্রেন্ড ছাড়া কাওকে রিকুয়েস্ট পাঠাতে হলে প্রথমে অনুমতি নিতে হতে পারে,একনাগাড়ে আপনি কারো আইডি তে যেয়ে লাইক দিতে পারবেন না.

স্টাট্যাসে কোন অনিরাপদ লিংক ব্যাবহার করা যাবে না.

ফেসবুকে ছবির ব্যাবহার নিরাপদ করার জন্য রিকাপ নামে খুব শীগ্রই একটি অপশন চালু হবে. এই অপশনের কাজ হবে ছবি যাচাই করা অর্থাৎ কোন ছবি পুর্বে কোন আইডিতে প্রোফাইল পিকচার হিসেবে ব্যাবহার করা হয়েছে কিন্তু নতুন করে আবার অন্য আইডি তে ব্যাবহৃত হতে যাচ্ছে সেক্ষেত্রে ফেসবুক এই পদ্বতিতে দেখবে ছবি টি সর্বপ্রথম যে আইডি তে ব্যাবহার করা হয়েছে সেই আইডির ব্যাক্তি কে একটি সংকেত দিবে ফেসবুক কতৃপক্ষ এবং তার থেকে অনুমতি চাইবে এই ছবিটি অন্য আইডি তে ব্যাবহার করতে পারবে কিনা,যদি ঔ ব্যাক্তি অগ্রাহ্য করে তাহলে ঔ ছবি আর প্রোফাইল পিকচার হিসেবে ব্যাবহৃত হবে না.

এই প্রসঙ্গে রিস্ক অপারেশন থেকে বিস্তারিত জানানো হয়েছে,মধ্যম আয়ের দেশগুলোতে ফেসবুক মেয়েদের জন্য অনেকক্ষেত্রেই নিরাপদ নয় কারণ ফেক আইডি খুলে মেয়েদের সাথে হরহামেশাই প্রতারণা করা হচ্ছে এবং মেয়েদের ছবির অপব্যবহার হচ্ছে.এই বিষয়গুলো আমাদেরকে ভাবিয়ে তুলেছে ক্রমাগত.

বিষয়টি হয়তো অনেকেই বুঝতে পারছেন এখন,ফেসবুক মিথিলা,বর্ষা কিংবা ফারজানা নামে অনেক আইডি আছে,প্রায় আইডিতে গুটি কয়েকজন মেয়েদের ছবি ব্যাবহার করা হয়েছে, অনেক পেজে কিংবা বড় বড় গ্রুপের Admin. আছেন এইসব ভুয়া ব্যাক্তি. সুতরাং এই সব ভুয়া মিথিলা কিংবা ফারজানা খুব বেশী দিন ফেসবুকে থাকবে না সেটা এখন খুব সহজেই বোঝা যাচ্ছে

পোষ্টটি লিখেছেন: বিশ্ব বিবেক

বিশ্ব বিবেক এই ব্লগে 3317 টি পোষ্ট লিখেছেন .

Loading...
পোস্টটি ভাল লাগলে লাইক দিন