হোম » অন্যান্য » সানিতে হেফাজতের ঘুম হারাম

সানিতে হেফাজতের ঘুম হারাম

২০১৩ সালের মে মাসের ৬ তারিখের পর থেকে নীরবে থাকা হেফাজতে ইসলামের ঘুম কেড়ে নিয়েছেন কানাডিয়ান ভারতীয় চিত্রনায়িকা সানি লিওনি। সাবেক এই পর্নস্টারের বাংলাদেশ সফর ঠেকাতে ইতোমধ্যে দফায়-দফায় বৈঠক করছে কওমি মাদ্রাসাভিত্তিক সংগঠনটি।

কর্মসূচির অংশ হিসেবে বিমানবন্দর ঘেরাও, এক দিনের হরতাল, বিক্ষোভ মিছিলসহ সমাবেশ করার প্রাথমিক পরিকল্পনা করেছে সংগঠনটি। তবে সেপ্টেম্বরের মাঝামাঝি সানি লিওনি সফর চূড়ান্ত হলে গেলেই কর্মসূচি নিয়ে প্রকাশ্যে আসবে আল্লামা শফীর নেতৃত্বাধীন হেফাজত। সংগঠনটির একাধিক কেন্দ্রীয় নেতার সঙ্গে ‌‌‌আলাপ করে এই তথ্য জানা গেছে।ঢাকা মহানগর হেফাজতের একটি সূত্র জানায়, দীর্ঘদিন ধরেই আড়ালে ছিল হেফাজত।

এ কারণে সাধারণ আলেম ও মাদ্রাসা-শিক্ষার্থীদের মধ্যে নিজের সাংগঠনিক গ্রহণযোগ্যতা নিয়ে এক ধরনের সংকটে ছিল সংগঠনটি। তবে এরই মধ্যে শাপে বর হিসেবে ধরা দিয়েছে সানি লিয়ন ইস্যুটি। যেভাবে হোক, সানি লিওনির বাংলাদেশ সফর ও তার অনুষ্ঠান বাতিল করতে চায় হেফাজত।সূত্রের দাবি, ইতোমধ্যে সরকারের বিভিন্ন চাপে হেফাজত কোণঠাসা অবস্থায় ছিল।

নেতাদের বিরুদ্ধে কয়েক শ’ মামলায় গ্রেফতারের ভয়ে এতদিন নীরব থেকেছে সংগঠনটি। পাশাপাশি মাঠ গরম করার মতো কর্মসূচি না থাকায় অনেকটাই চুপ ছিল হেফাজতের। তবে সানি লিওনির ইস্যুটি ধর্মভীরু সাধারণ মানুষের মধ্যে প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি করবে- এমন সম্ভাবনাকে সামনে রেখেই কর্মসূচির দিকে যাচ্ছে তারা।তবে এ প্রসঙ্গে হেফাজত নেতা খেলাফতে ইসলামী বাংলাদেশের আমির ও ইসলামী ঐক্যজোটের ভাইস চেয়ারম্যান মাওলানা আবুল হাসানাত আমিনী বলেন, সানি লিওনিকে ঠেকাতে প্রয়োজনে ঢাকা অবরোধ করা হবে।

তিনি বলেন, অপসংস্কৃতির কবলে পড়ে আমাদের নব্বই ভাগ মুসলমানের বাংলাদেশ আজ ধ্বংসের মুখে। প্রতিমাসেই কোনও না কোনও ভারতীয় শিল্পী এনে বেহায়াপনার আয়োজন করে এদেশের ঈমানি পরিবেশকে নষ্ট করা হচ্ছে।সূত্রের দাবি, ইতোমধ্যে হেফাজতের কেন্দ্র থেকে সারা দেশে মসজিদ ও মাদ্রাসায় সানি লিওনির বিরুদ্ধে সচেতনতা তৈরি করার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

এ সংক্রান্ত নিদের্শনা গত শনিবার হেফাজতের প্রতিটি শাখায় পৌঁছে দেওয়া হয়।বাংলা ট্রিবিউন নিশ্চিত হয়েছে, গত শুক্রবার জুমার নামাজের খুতবাতেও সানি-বিরোধী ওয়াজ করেছেন আলেমরা। হেফাজতে ইসলামের নারায়ণগঞ্জ জেলা আমির ও শহরের বৃহৎ মসজিদ ডিআইটি জামে মসজিদের খতিব মাওলানা আবদুল আউয়াল লিওনির বাংলাদেশ সফর ঠেকানোর হুমকি দিয়েছেন।হেফাজতের চট্টগ্রাম শাখার কয়েকজন নেতার সঙ্গে আলাপ করে জানা গেছে, সরকারের আচরণ বোঝার চেষ্টা করছেন হেফাজত আমির আল্লামা শফী। এরইমধ্যে চট্টগ্রাম প্রশাসনের কয়েকজন শীর্ষ কর্মকর্তা তার সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করেছেন। ত

বে, এ নিয়ে সরকারের সিদ্ধান্ত বুঝে এরপর কর্মসূচি ঘোষণা করবেন শফী।এ ব্যাপারে হেফাজতের মহাসচিব জুনায়েদ বাবুনগরী বলেন, আমরা আয়োজক কর্তৃপক্ষ, প্রশাসন ও সরকারের প্রতি স্পষ্টভাবে হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করছি। পর্নতারকা আমদানি করে মসজিদের শহর ঢাকায় কোনও অনুষ্ঠান হতে দেওয়া যাবে না। অন্যথায় অনুষ্ঠানস্থলে ঢাকার সর্বস্তরের তাওহিদি জনতা গণপ্রতিরোধ গড়ে তুলবে। পরে যেকোনও অপ্রীতিকর পরিস্থিতির জন্য সংশ্লিষ্টরা দায়ী থাকবেন।হেফাজত সূত্রে জানা গেছে, আল্লামা শফীর সঙ্গে সংগঠনটির নেতারা এ বিষয়ে আলোচনাও করেছেন।

সানির সফর ঠেকাতে প্রয়োজনে বিমানবন্দর অথবা অনুষ্ঠানস্থল ঘেরাও করারও পরিকল্পনা রয়েছে সংগঠনটির। এ জন্য আগে থেকেই বিমানবন্দর ও উত্তরা এলাকার মাদ্রাসাগুলোয় অবস্থান নেবে হেফাজতের নেতা-কর্মীরা। সফর বাতিল না হলে হরতাল দেওয়ারও চিন্তা রয়েছে সংগঠনটির।এ প্রসঙ্গে হেফাজতে ইসলামের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মাওলানা আজিজুল হক ইসলামাবাদী বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, আমরা আশা করছি সরকার সানি লিওনিকে নিয়ে অনুষ্ঠান করার অনুমতি দেবে না। যদি সরকার অনুমতি দেয়, তবে ভুল করবে।

প্রয়োজনে মুসলিম জনতাকে নিয়ে বিমান বন্দ‌‌‌রেই প্রতিহত করা হবে। যেখানে কনসার্ট আয়োজনের কথা রয়েছে, সেই বসুন্ধরা কনভেনশন হলও ঘেরাও করে রাখা হবে।জানা গেছে, আগামী সেপ্টেম্বরের মাঝামাঝি সময় অভিনেত্রী সানি লিওনি ঢাকায় আসবেন। তার নিজস্ব কনসার্টের উদ্যোক্তা প্রতিষ্ঠান বাংলাদেশের একটি প্রতিষ্ঠানকে কনসার্ট আয়োজনের অনুমোদন দিয়েছে

পোষ্টটি লিখেছেন: Ayon Hasan

Ayon Hasan এই ব্লগে 135 টি পোষ্ট লিখেছেন .

Close [X]