শুক্রবার , ৪ সেপ্টেম্বর ২০১৫
হোম » টিপস এন্ড ট্রিকস » ভ্যাসেলিনের যে ১৬টি ব্যতিক্রমী ব্যবহার আপনি এখনো জানেন না!

ভ্যাসেলিনের যে ১৬টি ব্যতিক্রমী ব্যবহার আপনি এখনো জানেন না!

পেট্রোলিয়াম জেলি বা ভ্যাসেলিন আমরা সবাই চিনি। এর সীমিত কিছু ব্যবহারই শুধু আমরা জানি। কিন্তু অনেকেরই হয়তো জানা নেই যে টুকিটাকি অনেক ক্ষেত্রেই এটি একটি সাশ্রয়ী ঘরোয়া উপকরণ! ১৪০ বছরের পুরনো এই জিনিসটি ব্যবহার করতে জানলে আসলে অনেক কাজেই ব্যবহার করা সম্ভব। চলুন, জেনে নিই ভ্যাসেলিনের এমন কিছু ব্যবহার যা আপনি আগে জানতেন না!

১) পায়ের গোড়ালী ফাটা রোধ করে
লোশন বা ক্রিমের বদলে অনেকেই ভ্যাসেলিন ব্যবহার করে থাকেন। তবে জানেন না যে গোড়ালি ফাটা দূর করতেও ভ্যাসেলিন দারুণ কাজে আসে। পা ভালো করে ঘষে পরিস্কার করে নিয়মিত ভেসলিন মেখে মোজা পড়ে রাখলে খুব সহজেই এই সমস্যা থেকে রেহাই পাওয়া যায়।

২) নেইল পলিশের মুখ খুলতে
অনেক সময় নেইল পলিশের মুখ শক্ত হয়ে আটকে যায় খোলা রীতিমত অসম্ভব। সামান্য ভ্যাসেলিন নেইল পলিশের ক্যাপের মুখের নিচে লাগিয়ে রাখুন। সহজে খুলে যাবে।

৩) দাঁতে লিপস্টিক লাগা প্রতিরোধে
অনেক সময়ই দাঁতে লিপস্টিক লেগে যায়। তাই মেকআপের আগে সামান্য ভ্যাসেলিন দাঁতে লাগান। দাঁত দেখতে হবে সাদা এবং লিপস্টিকও আর লাগবেনা।

৪) চোখের পাপড়ির ঘনত্ব বাড়াতে
রাতে ঘুমানোর আগে চোখের পাতায় সামান্য কিছুটা ভ্যাসেলিন লাগিয়ে নিন। কিছুদিন পর দেখুন চমক।

৫) পারফিউমের গন্ধ দীর্ঘস্থায়ী করতে
গলায়, ঘাড়ে, হাতে বা যেখানে সাধারণত পারফিউম দেয়া হয় সেখানে খুব সামান্য ভ্যাসেলিন মেখে নিয়ে পারফিউম স্প্রে করলে গন্ধটা দীর্ঘক্ষণ স্থায়ী হয়।

৬) চুলের আগা ফেটে যাওয়া প্রতিরোধ করতে
দুই আঙ্গুলে কিছুটা ভেসলিন নিয়ে চুলের ডগায় লাগিয়ে রাখুন। তবে খেয়াল রাখতে হবে পরিমাণে যেন খুব বেশি না হয়।

৭) জুতার উজ্জলতা বৃদ্ধিতে
জরুরি কোন কাজে পরিপাটি হতে হবে কিন্তু হাতের কাছে সু পলিশ নেই। কোন চিন্তা নেই! সামান্য ভ্যাসেলিন নিয়ে জুতা ভাল করে কাপড় দিয়ে মুছে নিন। নতুনের মত ঝকঝকে হয়ে যাবে।

৮) চুলের রঙের দাগ তুলতে
অনেক সময় সাদা চুল কালো রঙ করতে গিয়ে কপালে, কানে এসব স্থানে লেগে যায়। সেই দাগ সহজে তোলাটাও কষ্টকর হয়ে যায়। তখন সামান্য কিছুটা ভেসলিন নিয়ে লেগে থাকা দাগের উপর লাগিয়ে কিছুক্ষন রেখে ধুয়ে ফেলুন। দাগ উঠে যাবে।

৯) শেভ করার পর ত্বকের আর্দ্রতা আনতে
শেভ করার পর মুখে শুষ্ক ভাব চলে আসে। সেটা থেকে রেহাই পেতে সামান্য ভ্যাসেলিন মুখে মেখে নিন।

১০) ত্বকের মরা কোষ দূর করতে
ভ্যাসেলিনের সাথে সামান্য সামুদ্রিক লবন মিশিয়ে পুরো শরীর স্ক্রাব করে গোসল করলে দেহের ত্বক হয়ে উঠবে সতেজ ও মসৃন।

১১) কানের দুল পরতে
অনেক সময়ই দেখা যায় কানে টপ বা দুল পরা কষ্টকর হয়ে যায়। তখন সামান্য ভ্যাসেলিন ব্যবহার করলে কাজটি বেশ সহজ হয়ে যায়।

১২) সহজে ভ্রু প্লাক করতে
যদি ভ্রুপ্লাক করার আগে একটু ভেসলিন মাখিয়ে নেন তাহলে ওই স্থানের ত্বক থাকে নরম এবং কম ব্যথায় সহজে ভ্রুপ্লাক করা যায়।

১৩) কৃত্রিম চোখের পাপড়ির আঠা পরিষ্কারে
সামান্য কিছুটা ভ্যাসেলিন ব্যবহার করলে কৃত্রিম চোখের পাপড়িতে লেগে থাকা আঠা খুব সহজে পরিষ্কার করা যায়।

১৪) তৈলাক্ত আইশ্যাডো তৈরিতে
অনেক সময় পাউডার আইশ্যাডোকে তৈলাক্ত করতে ভ্যাসেলিন ব্যবহার করা হয়।

১৫) নখের চামড়া ওঠা প্রতিরোধে
অনেকেরই নখের কাছে চামড়া উঠে বিশেষ করে শীতকালে। তাই হাতের আঙ্গুলে যদি ভ্যাসেলিন মেখে রাখা হয় তাহলে সেই সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়া যায়

১৬) সহজে মেকআপ তুলতে
মেকআপ করে সেজেগুজে কোন অনুষ্ঠানে যাওয়া যতটা সহজ তার চেয়ে বেশি কষ্ট হছে সেই মেকআপ তোলা। ভ্যাসেলিন সেই কাজটি সহজ করে দেয়। কিছুটা ভ্যাসেলিন নিয়ে মেকআপ তুলে ফেলুন খুব সহজেই। এবং পরদিনের জন্য ত্বককে করে তুলুন সতেজ ও ঝরঝরে।

লিখেছেন
শওকত আরা সাঈদা (লোপা)
জনস্বাস্থ্য পুষ্টিবিদ
এক্স ডায়েটিশিয়ান,পারসোনা হেল্‌থ
খাদ্য ও পুষ্টিবিজ্ঞান(স্নাতকোত্তর)(এমপিএইচ)
মেলাক্কা সিটি, মালয়েশিয়া।

তথ্য সূত্রঃ healthy food team

পোষ্টটি লিখেছেন: GM rahap Rahap

GM rahap Rahap এই ব্লগে 11 টি পোষ্ট লিখেছেন .

মন্তব্য করুন

Loading Facebook Comments ...

Leave a Reply

Close [X]