হত্যার আগে ৩ জিম্মির শেষ ইচ্ছা পূরণ করে জঙ্গিরা

Loading...

 

আর কয়েক মুহূর্ত পর মেরে ফেলা হবে তাদের ইশরাতের পাশে তখন দুই জঙ্গি দারিয়ে তর্ক চালিয়ে যাচ্ছে। নাম জানতে চেয়েছিল তারা। ‘ইশরাত’ শুনে এক জন বলেছিল, ‘‘ও বাঁচার জন্য ধর্মের নাম (মুসলিম নাম) নিচ্ছে। মুসলমান হলে হিজাব পরেনি কেন? মাথায় কাপড় নেই কেন?’’

হিজাব পরার অভ্যেসটা ছোট থেকেই ছিল না ঢাকার একটি আর্ট গ্যালারির প্রাক্তন প্রধান ইশরাতের। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের এই প্রাক্তনীর উচ্চশিক্ষা অস্ট্রেলিয়ায়। ওই আর্ট গ্যালারি ছাড়াও কাজ করেছেন বিভিন্ন সংস্থার উচ্চ পদে। নিজে শিল্পী। আবার মিউজিক ভিডিওয় অভিনয়ও করেছেন।

শুক্রবার সন্ধ্যায় কফি খেতে গিয়েছিলেন গুলশনের হোলি আর্টিজেন বেকারিতে। জঙ্গিদের নাগাল এড়িয়ে পালানো ওই কাফের এক কর্মী খুব কাছ থেকে দেখেছিলেন ইশরাতের শেষ মুহূর্তগুলো। তিনিই জানিয়েছেন, ইশরাতের দিকে এগিয়ে আসা জঙ্গির প্রথম প্রশ্নই ছিল, ‘‘তোমার মাথায় হিজাব নেই কেন?’’

ইশরাত তাকে জানান, তিনি বাংলাদেশেরই নাগরিক। তবে কোনও দিনই হিজাব পরেননি। এর পরেই তাঁর নাম জানতে চাওয়া এবং তা নিয়ে দুই জঙ্গির আলোচনা। মিনিটখানেকের একটু বেশি সময় ধরে ব্যাপারটা গড়ায়। এই সময়ে তৃতীয় এক জঙ্গি এসে বলে, ‘‘আমাদের হাতে কিন্তু বেশি সময় নেই।’’

জঙ্গির ধারালো অস্ত্র নেমে আসে তখনই। ইশরাত পড়ে থাকেন কফির কাপে মুখ থুবড়ে।

তালিকা বলছে, মাঝবয়সি ইশরাত-সহ নিহতদের মধ্যে রয়েছেন মোট তিন জন বাংলাদেশি। অন্য দু’জন তুলনায় নবীন। এক জন, একটি শিল্পগোষ্ঠীর চেয়ারম্যান লতিফুর রহমানের নাতি ফারাজ হোসেন। প্রথম সারির একটি দৈনিক রয়েছে এই শিল্পগোষ্ঠীর। তৃতীয় নাম অন্য একটি শিল্পগোষ্ঠীর চেয়ারম্যানের মেয়ে অবিন্তা কবীরের। আমেরিকা থেকে এসেছিলেন ইদের ছুটিতে। সঙ্গে দেহরক্ষীও ছিলেন। রক্ষী বেঁচে গেলেও রক্ষা পাননি অবিন্তা।

এদিকে, হত্যার আগে লতিফুর রহমানের নাতি ফারাজ হোসেন, অবিন্তা কবীর এবং ভারতীয় তরুণী তারুশি জৈন্যর শেষ ইচ্ছে পূরণ করে জঙ্গিরা এমন খবর প্রকাশ করেছে টাইমস অব ইন্ডিয়া। প্রথম দুজনকে পছন্দের খাবার খেতে দেয়া হয়েছিল কিন্তু তখনো তারা জানতো না যে তাদেরকে হত্যা করা হবে এবং ভারতীয় তরুণীকে তার পিতার সঙ্গে ফোনে কথা বলতে দেয় হামলাকারীরা।

আরো পড়ুন
আপু আমি বাসর রাতে দেখি ওর সেটা নেই….
আপু ও শুয়ে রইল বাইরে, আর ওর দুই বন্ধু এসে আমাকে…
স্বামীর কাছ থেকে মজা পাইনা তাই নিজে নিজেই….

ঐ আপু আমার থেকে 7/8 বছরের বড় ছিলো কিন্তু আমাকে দিয়ে ইচ্ছেমতো…

একরাতে ঔই বড় আপু পুরোপুরি নগ্ন হয়ে আমার…..

পোষ্টটি লিখেছেন: বিশ্ব বিবেক

বিশ্ব বিবেক এই ব্লগে 3317 টি পোষ্ট লিখেছেন .

Loading...
পোস্টটি ভাল লাগলে লাইক দিন