হোম » শিক্ষা » ৩৪ তম বিসিএস পরীক্ষার চুড়ান্ত ফলাফল প্রকাশ করেছে বাংলাদেশ সরকারি কর্ম কমিশন(পি,এস,সি)

৩৪ তম বিসিএস পরীক্ষার চুড়ান্ত ফলাফল প্রকাশ করেছে বাংলাদেশ সরকারি কর্ম কমিশন(পি,এস,সি)

৩৪তম বিসিএসের চূড়ান্ত ফলাফল প্রকাশ করেছে বাংলাদেশ সরকারি কর্ম কমিশন (পিএসসি)।

শনিবার রাত সাড়ে ৯টায় প্রকাশিত ফলাফলে দুই হাজার ১৫৯জনকে বিভিন্ন ক্যাডারে নিয়োগের সুপারিশ করা হয়েছে। এছাড়াও নন-ক্যাডার পদে নিয়োগের জন্য ৬হাজার ৫৮৪জন সুপারিশ করা হয়। পিএসসির জনসংযোগ কর্মকর্তা ইত্তেফাককে এ তথ্য নিশ্চিত করেছে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে সরকারি কর্ম কমিশনের (পিএসসি) পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক (ক্যাডার) আ ই ম নেছারউদ্দিন ইত্তেফাককে জানান, কমিশনের (www.bpsc.gov.bd) ওয়েবসাইটে চূড়ান্ত ফলাফল পাওয়া যাবে। এছাড়া টেলিটক মোবাইল থেকে BCS লিখে স্পেস দিয়ে ৩৪ লিখে স্পেস দিয়ে রেজিস্ট্রেশন নম্বর লিখে ১৬২২২ নম্বরে এসএমএস পাঠালে ফল জানিয়ে দেয়া হবে।

গত বছরের ১৮ ডিসেম্বর ৩৪তম বিসিএসের লিখিত পরীক্ষার ফল প্রকাশ করা হয়েছিল। এতে উত্তীর্ণ হন ৯ হাজার ৮২২ জন। দুই হাজার ৫২টি পদে নিয়োগে ২০১৩ সালের ৭ ফেব্রুয়ারি ৩৪তম বিসিএসের প্রজ্ঞাপন প্রকাশ করে পিএসসি। ওই বছরের ২৪ মে প্রিলিমিনারি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। এতে ১ লাখ ৯৬ হাজার পরীক্ষার্থী অংশ নেন। প্রিলিমিনারি পরীক্ষার ফল গত বছরের ৮ জুলাই প্রকাশ করা হয়। এতে ১২ হাজার ৩৩ জন উত্তীর্ণ হন। এ পরীক্ষায় প্রথমবারের মতো প্রিলিমিনারিতে কোটাপদ্ধতি চালু করায় অনেক মেধাবী বঞ্চিত হন। অপেক্ষাকৃত কম নম্বর পেয়ে আদিবাসী ও মুক্তিযোদ্ধা কোটায় অনেকেই উত্তীর্ণ হন।

এ নিয়ে সারা দেশে আন্দোলন ছড়িয়ে পড়লে গত বছরের ১০ জুলাই ফল পুনর্মূল্যায়নের সিদ্ধান্ত নেয় পিএসসি। এরপর ১৪ জুলাই প্রচলিত পদ্ধতিতে সংশোধিত ফল প্রকাশ করা হয়। এতে মোট ৪৬ হাজার ২৫০ জন পরীক্ষার্থী উত্তীর্ণ হন। আগের উত্তীর্ণ সবাইকে রেখেই পুনর্মূল্যায়িত ফল দেয়া হয়েছে বলে পিএসসি দাবি করলেও প্রথমবার উত্তীর্ণদের মধ্যে ২৮১ জন আদিবাসী বাদ পড়েন। এ নিয়ে ‘বঞ্চিত’ আদিবাসীরা পিএসসি ও জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের কাছে লিখিত আবেদন করেন। বিভিন্ন কর্মসূচিও পালন করেন তারা। এরপরেও তাদের উত্তীর্ণের বিষয়ে কোনো সিদ্ধান্ত না হওয়ায় আগের ফলে উত্তীর্ণ ৫৯ জন আবেদনকারীর পক্ষে ব্যারিস্টার জ্যোতির্ময় বড়ুয়া গত বছরের ২৮ জুলাই হাইকোর্টে রিট করেন। ওই রিট আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে বিচারপতি নাঈমা হায়দার ও বিচারপতি জাফর আহমেদের হাই কোর্ট বেঞ্চ গতবছর ৩১ জুলাই এক আদেশে প্রথম ফলে উত্তীর্ণ ৫৯ রিটকারীসহ ২৮১ জনকে বাদ দিয়ে প্রকাশিত ফল কেন অবৈধ ঘোষণা করা হবে না তা জানতে চায়।

এ ছাড়া পুনর্মূল্যায়িত ফলে আদিবাসী কোটায় আবেদনকারীদের বাদ দেয়ার কারণও জানতে চায় হাই কোর্ট। পরে হাইকোর্টের নির্দেশনা অনুযায়ী আদিবাসী কোটার প্রার্থীরাও লিখিত পরীক্ষায় অংশ নেয়ার সুযোগ পান। এত বিপুলসংখ্যক প্রার্থীর লিখিত পরীক্ষা নেয়া নিয়ে সংকটে পড়ে পিএসসি। চলতি বছরের মার্চে লিখিত পরীক্ষা হয়।

পোষ্টটি লিখেছেন: Shawon Hossan

Shawon Hossan এই ব্লগে 15 টি পোষ্ট লিখেছেন .

Close [X]