আপন তিন ভাইকে খুন করলেন নরসিংদীর রুবেল

Loading...

নরসিংদী সদর উপজেলার মেঘনা নদীবেষ্টিত চরাঞ্চল আলোকবালীতে তিন সহোদরকে খুনের ঘটনায় বড় ভাই মো. রুবেল মিয়াকে (২২) পুলিশে সোপর্দ করেছেন স্থানীয় লোকজন।
আজ বুধবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে গ্রামের লোকজন রুবেলকে পুলিশে সোপর্দ করেন।

এ ঘটনায় এখনো কোনো মামলা দায়ের করা হয়নি। ময়নাতদন্তের জন্য নিহত তিনজনের লাশ উদ্ধার করে নরসিংদী সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।
গতকাল মঙ্গলবার দিবাগত রাত সোয়া ১২টার দিকে সদর উপজেলার চরাঞ্চল আলোকবালীর পূর্বপাড়া গ্রামে দুই বোন ও এক ভাইকে খুনের অভিযোগ ওঠে রুবেলের বিরুদ্ধে।
নিহত তিনজন হলো আলোকবালীর পূর্বপাড়া গ্রামের আবু কালাম মিয়ার ছেলে ইয়াসিন (১০), মেয়ে মরিয়ম (৭) ও মাহিয়া (৫)।
রুবেলেরই ধারালো আস্ত্রের আঘাতে আতিকুর রহমান নামের আরেক ভাই গুরুতর আহত হন বলে অভিযোগ ওঠে। আতিকুর স্থানীয় একটি মাদ্রাসায় শিক্ষকতা করেন।
পুলিশ সূত্রে জানা যায়, পারিবারিক বিরোধের জের ধরে আলোকবালীর পূর্বপাড়া গ্রামে আবু কালাম মিয়ার ছেলে রুবেল মিয়া তাঁর ছোট ভাই ইয়াসিন, ছোট বোন মরিয়ম ও মাহিয়াকে শ্বাসরোধে হত্যা করেন। পরে বড় ভাই মাদ্রাসাশিক্ষক আতিকুর রহমানকে মাদ্রাসা থেকে বাড়ি ডেকে আনেন। বাড়ির কাছে পৌঁছালে রুবেল তাঁকে পেছন থেকে এলোপাতাড়ি কোপাতে থাকেন। পরে চিৎকারে আশপাশের লোকজন এসে উদ্ধার উদ্ধার করে রাতেই তাঁকে সদর হাসপাতালে ভর্তি করেন।
ঘটনার পরপরই গা-ঢাকা দেন রুবেল। পরে বুধবার সকালে গ্রামের একটি নির্জন স্থান থেকে স্থানীয় লোকজন তাঁকে আটকে বেঁধে রাখেন। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত রুবেলকে বাঁধা অবস্থায় উদ্ধার করে নরসিংদী সদর মডেল থানায় নিয়ে যান।
সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি (তদন্ত) সালাউদ্দিন বলেন, এই নৃশংস হত্যাকাণ্ডটি কী কারণে ঘটেছে, তা এখনো পরিষ্কার নয়। তদন্ত চলছে।

পোষ্টটি লিখেছেন: Polash Chowdhury

Polash Chowdhury এই ব্লগে 57 টি পোষ্ট লিখেছেন .

Loading...
পোস্টটি ভাল লাগলে লাইক দিন